রবিবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০১৫

বিপিএল নিয়ে সন্তুষ্ট বিদেশীরা

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) তৃতীয় আসর শেষ হয়েছে ১৫ ডিসেম্বর। কিছু সমস্যা ছাড়া বলা যায়, প্রায় সফলভাবেই শেষ হয়েছে এবারের আসর। সেই সফলতা আর সমস্যাগুলো নিয়ে কয়েকদিন ধরে চলছে বেশ আলোচনা-সমালোচনা। আর সেইসব আলোচনা আর সমালোচনার জবাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ভাবনা গণমাধ্যমকে জানাতেই বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন মুখোমুখি হয়েছিলেন সাংবাদিকদের।
গত সেপ্টেম্বরে গুলশানে এক বিদেশী নাগরিক নিহত হবার ঘটনার জের ধরে বাংলাদেশ সফর স্থগিত করেছিল অস্ট্রেলিয়া। তবু বিসিবি সভাপতি বারবারই বলে আসছিলেন, ক্রিকেটের জন্য বাংলাদেশ নিরাপদ। অনেক বিদেশী ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণে আয়োজিত বিপিএল তার সেই দাবিকে জোরালো করেছে আরো। আর এই আয়োজনকে তাই তিনি দেখছেন একটি ‘প্লাস পয়েন্ট’ হিসেবে।
নাজমুল হাসান বলেন, ‘আমাদের এখানে জঙ্গি তৎপরতার কথা বলে ২-১টি সিরিজ বাতিল করা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া আসেনি, দক্ষিণ আফ্রিকা নারী দলও আসেনি। এবারের বিপিএলে আমরা যে ধরণের বিদেশী খেলোয়াড়, কোচ এবং ফিজিও আশা করেছিলাম, মোটামুটি সবাইকেই আমরা পেয়েছি। এখানে নাম করা খেলোয়াড়ও খেলে গেছে।’
টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করা বিদেশীদের প্রত্যেকেই বিপিএলের এবারের আয়োজনের প্রশংসা করেছেন জানিয়ে বিসিবি সভাপতি বলেন, ’৬৫ জন বিদেশী খেলোয়াড়, ৬ জন কোচ আর ফিজিও এবারের টুর্নামেন্টে অংশ নিয়েছেন। তারা প্রত্যেকেই এই টুর্নামেন্টের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। তারা বলেছেন, বাংলাদেশে খেলতে উনারা ইজি ফিল করেন। সামনেও এখানে খেলতে উনারা আগ্রহী। এটা আমাদের জন্য একটা প্লাস পয়েন্ট।’
এবারের বিপিএল ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছে বলেও মনে করছেন নাজমুল হাসান, ‘সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে টুর্নামেন্টটা জমজমাট কিংবা প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হয়েছে কিনা। এটা না হলে কোন টুর্নামেন্টই দর্শক টানতে পারে না। আমরা লক্ষ্য করেছি, এবারের টুর্নামেন্টে দর্শকদের যে সাড়া ছিল তা অকল্পনীয়। প্রত্যেকটা দলই প্রচুর সাপোর্ট পেয়েছে। এটাই প্রমাণ করে এবারের বিপিএলটা দর্শকদেরও আকৃষ্ট করতে সমর্থ হয়েছে।’

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন